Find a Book  

Biography : Professor Prokashony


একটি সুশিক্ষিত জাতির স্বপ্নে আমাদের পথ চলা...

একটি সুশিক্ষিত জাতিই পারে একটি উন্নত ও সফল সভ্যতা নির্মাণ করতে। সমগ্র বিশ্বের দিকে তাকালে আমরা দেখতে পাই, যেসব জাতি সুশিক্ষিত তাদের পরিশ্রম ও সাধনার ফলেই আজ পৃথিবীর এত মহিমা, এত বৈভব। জাতি হিসেবে আমাদের একটি গৌরবময় অতীত থাকলেও বর্তমানে আমাদের অবস্থা খুব একটা সুখকর নয়। বেকারত্ব, অশিক্ষা, দারিদ্র্য ইত্যাদি সমস্যা আমাদের নিত্যসঙ্গী। এসব সমস্যা যে কোনো সচেতন নাগরিককেই চিন্তিত করে, তার অনুভূতিকে নাড়া দেয়। আমাদেরকেও এ সমস্যা ভাবায়।

এসব চিন্তা থেকেই ১৯৯৪ সাল থেকে একদল সুশিক্ষিত অধ্যাপক, লেখক ও তরুণের সমন্বয়ে প্রফেসর’স প্রকাশন-এর পথ চলা। নিছক বাণিজ্যিক উদ্দেশ্য থাকলে অধিক মুনাফার আশায় অন্য অনেক ব্যবসাই করা যেত। কিন্তু আমরা চেয়েছি জাতীয় কল্যাণ, রুচি ও ব্যবসার সমন্বয়সাধন করতে। এ উদ্দেশ্যসাধনেই ১৯৯৬ সালে প্রকাশিত হচ্ছে দেশের প্রথম ও সর্বাধিক প্রকাশিত সাধারণ জ্ঞান, ক্যারিয়ার এবং সাম্প্রতিক গুরুত্বপূর্ণ বিষয়সমৃদ্ধ মাসিক ‘প্রফেসর’স কারেন্ট অ্যাফেয়ার্স’। এছাড়াও ২০০১ সালে প্রকাশিত হয় বিজ্ঞান-প্রযুক্তি ও স্বাস্থ্যবিষয়ক মাসিক পত্রিকা ‘সায়েন্স ওয়ার্ল্ড’ । প্রফেসর’স প্রকাশন-এর পাঠকসেবার এই দীর্ঘ পথপরিক্রমায় প্রফেসর’স পরিবারে পরবর্তীতে যুক্ত হয়েছে সৃজনশীল সাহিত্য ও গবেষণাকর্ম নিয়ে ‘কথাপ্রকাশ’, শিশুমনের নানা রঙ আর কিশোরমনের নানা ভাবনার সমন্বয়ে নান্দনিকতা নিয়ে ‘শৈশব পাবলিকেশন্স’ এবং কোরআন ও হাদীসের আলোকে গবেষণাধর্মী ইসলামী জ্ঞান বিষয়ক প্রকাশনা ‘আকীক পাবলিকেশন্স’। সেই সাথে সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ‘বর্ণালী বইঘর’ ও ‘সুবর্ণ প্রিন্টার্স’ এবং সামাজিক সেবামূলক প্রতিষ্ঠান হিসেবে যুক্ত করা হয়েছে ‘হালিমা-রহিম ফাউন্ডেশন’। এ সব কিছুই পাঠকসেবার উদ্দেশ্যে প্রফেসর’স পরিবারের একান্ত ও নিরবচ্ছিন্ন প্রচেষ্টা।

আমরা যে স্বপ্ন নিয়ে পথচলা শুরু করেছি, তাতে আর্থিকভাবে খুব লাভবান না হলেও মানসিকভাবে আমরা সফল। কেননা, আমাদের সঙ্গে রয়েছে অজস্র পাঠক এবং দেশবাসীর অফুরন্ত ভালোবাসা । আমরা চাই আমাদের দেশ ও জাতি নিজেকে বিশ্বের সামনে মাথা উচু করে দাড়াক, আপন শক্তিতে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করুক।

 

 
Few Books of Professor Prokashony
profassor BCS Bangla
Download
 
All Books of professor prokashony
Article and Tutorial

গুগলে চাকরি পেতে পরীক্ষায় বেশি জিপিএ থাকতে হবে, এ ধারণা করা ঠিক নয়। গুগলে চাকরি পেতে জিপিএ কিংবা পরীক্ষায় খুব ভালো নম্বর পাওয়ার বিষয়টির তেমন কোনো গুরুত্বই নেই। কারণ পরীক্ষার ফল দেখে কারও সম্পর্কে ধারণা করা যায় না-এ কথাগুলো নিউইয়র্ক টাইমসকে এক সাক্ষাত্কারে জানিয়েছেন গুগলের মানবসম্পদ বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট লাজলো বক।

লাজলোর মতে, ধীরে ধীরে প্রচলিত শিক্ষাগত যোগ্যতা হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় বা কোনো প্রাতিষ্ঠানিক ডিগ্রি ছাড়া গুগলকর্মীর সংখ্যা বাড়ছে। গুগলের কিছু কিছু টিমে ১৪ শতাংশ কর্মীর প্রাতিষ্ঠানিক কোনো ডিগ্রি নেই। এ অবস্থায় অনেকেই জিজ্ঞাসা করেন গুগলের মতো প্রতিষ্ঠানে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার গুরুত্ব না থাকলে চাকরি মিলবে কীভাবে? এ বিষয়ে লাজলো বকের মুখ থেকেই আমরা শুনব গুগলে চাকরি পাওয়ার শর্তগুলো।

‘আমাকে ভুল বুঝবেন না’ লাজলো শুরু করেন এভাবেই। পরীক্ষায় কেউ ভালো ফল করলে বা ভালো গ্রেড পেলে চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে কোনো সমস্যা নেই। তবে গুগলে চাকরি পেতে গণিত ও কম্পিউটিং, বিশেষ করে কোড লেখার দক্ষতা জরুরি। যদি কেউ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পরীক্ষায় ভালো গ্রেড অর্জন করে এবং সত্যিকারের দক্ষতা দেখাতে পারে, তারা গুগলে চাকরির জন্য অবশ্যই আবেদন করতে পারে। গণিত আর কোড এ দুটি দক্ষতা চাকরিপ্রার্থীর জন্য একটা বাড়তি সুবিধা করে দিতে পারে। তবে এ দুটির বাইরে গুগলে চাকরি পেতে আরও অনেক দক্ষতাই অর্জন করতে হবে।

more
Flu-fighting foods It takes more than an apple a day to keep the doctor away. It turns out that eating some pretty surprising nutrients will help keep your immune system on guard. You can ensure your body and immunity run smoothly by rounding out your plate with plenty of colorful servings of fruits and veggies, plus 8 to 10 glasses of water a day, at the very least. The following ingredients can add extra flu-fighting punch to your winter meal plan.

Need more advice for staying healthy through the season?
more
Soleil Moon Frye shared on Twitter Feb. 11 that she's given birth to a baby boy; the Punky Brewster star and husband Jason Goldberg are already parents to daughters Poet, 8, and Jagger, 5
more